আলোময়.কম হোম,ইসলাম ও বিজ্ঞান, ফিডব্যাক,অংশ নিন fb page

শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৩

সূর্যে হাইড্রোজেন-হিলিয়াম চক্র কীভাবে ঘটে


আমরা সূর্যের যে আলো ও তাপ পাই তা হলো সূর্যে সংঘটিত নিউক্লিয়ার সংযোজন বিক্রিয়ার ফলে নির্গত রূপান্তরিত আলোক ও তাপ শক্তি। এ আলো ও তাপ সরবরাহ করতে প্রতিনিয়ত সূর্য হাইড্রোজেনের নিউক্লিয়ার সংযোজন বিক্রিয়ার মাধ্যমে হিলিয়াম উৎপন্ন করে চলছে। আর এ বিক্রিয়া থেকে নির্গত হয় আলো ও তাপ। প্রশ্ন উঠতে পারে এত হাইড্রোজেন কোথা থেকে আসে বা হাইড্রোজেন ফুরিয়ে যায় না কেন? চক্রটির প্রক্রিয়া বুঝলেই আমরা ব্যাপারটি ধরতে পারব। তবে, হ্যাঁ আগেই বলে রাখি, হাইড্রোজেন সত্যিই একসময় ফুরিয়ে যাবে।
সূর্যে হাইড্রোজেন চক্র নামে বেশ অনেকগুলো নিউক্লিয়ার বিক্রিয়া ঘটে।
প্রথমে, দু’টি প্রোটন একে অপরকে ধাক্কা দিলে একটি প্রোটন থেকে একটি নিউট্রন একটি পজিট্রন কণিকা তৈরি হয়। প্রোটনটি ও নিউট্রন মিলিত হয়ে ডিউটেরিয়াম (হাইড্রোজেন এর স্থিতিশীল আইসোটোপ) নিউক্লিয়াস তৈরি করে। এটাই মূলত নিউক্লিয়ার বিক্রিয়া।
এবার আরেকটি প্রোটন ডিউটেরিয়াম নিউক্লিয়াসকে ধাক্কা দেয়। তাহলে, এবার নিউক্লিয়াসে দু’টি প্রোটন ও একটি নিউট্রন আছে। এটা হলো হিলিয়াম-৩ নিউক্লিয়াস।
এবারে, দু’টি হিলিয়াম-৩ নিউক্লিয়াস একে অপরের সাথে মিলিত হয়। দু’টি প্রোটন ও দুটি নিউট্রন মিলিত হয়ে হিলিয়াম-৪ এর নিউক্লিয়াস গঠিত হয়। অন্য দু’টি প্রোটন অবশিষ্ট থেকে অন্য বিক্রিয়ায় অংশ নেয়।
অর্থ্যাৎ, যা দাঁড়াল, ৬ টি প্রোটন থেকে একটি হিলিয়াম নিউক্লিয়াস (যাতে দুটি প্রোটন ও নিউট্রন আছে),  দুইটি পজিট্রন ও দুইটি প্রোটন উৎপন্ন হলো।
এ দু’টি প্রোটনই আবার বিক্রিয়াটি শুরু করে ফলে চক্রটি অবিরত চলতে থাকে।এই প্রক্রিয়াটি প্রযোজ্য সূর্যের জন্য। অন্যান্য তারকার ক্ষেত্রে (মহাকাশবিজ্ঞানের ভাষায় যদিও সূর্য নিজেও একটি তারকা) কার্বন চক্র নামে পর্যাক্রমিক চক্রীয় বিক্রিয়া চলতে থাকে।
সূর্যের ক্ষেত্রে এভাবে অবশ্যি একসময় হাইড্রোজেন জ্বালানী শেষ হয়ে যাবে। তখন সূর্য নাক্ষত্রিক বিকাশের পরবর্তী ধাপে প্রবেশ করবে।
http://answers.yahoo.com/question/index?qid=20070418050746AA2oWeN

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন